নিখোঁজের ১৭ দিন পর গাইবান্ধার নন্দিতা রানীকে উদ্ধার করলো পুলিশ




ষ্টাপ রির্পোটার:  অবশেষে নিখোঁজের ১৭দিন পর গাইবান্ধার সংখ্যালঘু হিন্দু পরিবারের নাবালিকা মেয়ে নন্দিতা রানীকে উদ্ধার করলো থানা পুলিশ ৷পুলিশ জানিয়েছে অনেক স্থানে তাদের সন্ধান পেয়ে অভিযান চালিয়েও কোন ভাবে উদ্ধার করা যাচ্ছিল না ৷

অবশেষে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকায় অভিযান চালিয়ে নিখোঁজ নন্দিতা রানীকে উদ্ধার করা হয়েছে এবং মুল আসামি আল আমিনকেও গ্রেফতার করা হয় ৷ গত ২২ শে ডিসেম্বর রাতে প্রকৃতির ডাকে সারা দেবার সময় ওঁত পেতে থাকা বখাঁটে যুবক আল আমিন নন্দিতা রানীকে অপহরন করে ৷এদিকে বখাটে আল আমিন নন্দিতা রানীকে নিয়ে আত্নগোপন হলে বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচের সদস্য ও বগুড়া জেলা প্রতিনিধি বিকাশ কর্মকার এবং মানবাধিকার কর্মি অরবিন্দু রায় (নিলফামারী) গাইবান্ধার সদর থানার ওসির সঙ্গে সর্ব্বখনিক যোগাযোগ করে মামলা করার সব পরিবেশ সৃষ্টি করে দেয় ৷

এ বিষয় নিয়ে মানবাধিকার কর্মিরা বার বার ওসির সঙ্গে কথা বলার পর অবশেষে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে এবং মুল আসামি আল আমিনকেও গ্রেফতার করে জেল হাজুতে প্রেরন করে ৷অপরদিকে থানা পুলিশ উদ্ধারকৃত নাবালিকা নন্দিতা রানীকে আদালতে উপস্থাপন করলে মেয়েটি তার জবানবন্দিতে ওই ছেলে তাকে কৌশলে অপহরন করে মর্মে আদালতকে অবহিত করেন এবং তার ইচ্ছায় তাকে আদালত বাবা ও মার হেফাজতে দিয়ে দেয় ৷মেয়ের জ্যাঠাতো বোন পলি রানী জানায় কাকাতো বোন নন্দিতাকে পাশের বাড়ির বখাটে ছেলে আল আমিন শয়তানি করে নিয়ে যায় এবং পরিশেষে মামলার পর থানা পুলিশ বোনকে উদ্ধার করে ও বখাটে আল আমিনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজুতে প্রেরন করেছে ৷


 মানবাধিকার কর্মি অরবিন্দু রায় বলেন হিন্দু নাবালিকা মেয়ে নন্দিতা রানী নিখোঁজের পর থেকে আমরা সব সময় থানা পুলিশের সাথে সব ধরনের যোগাযোগ রেখেছিলাম অবশেষে নন্দিতা রানীকে পুলিশ উদ্ধার করায় ধন্যবাদ জানায় ৷মানবাধিকার কর্মি বিকাশ কর্মকার বলেন নাবালিকা নন্দিতা রানীকে পুলিশ উদ্ধার করায় থানা পুলিশকে অভিনন্দন জানায় ৷গাইবান্ধার সদর থানার ওসি মোঃ মাহফুজার রহমান বলেন আমাদের অফিসাররা অনেক স্থানে খোঁজাখুজির পরে অবশেষে তাদের উদ্ধার করা হয় এবং মুল আসামি আল আমিনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজুতে প্রেরন করা হয় 

উল্লেখ্য হিন্দু নাবালিকা মেয়ে নন্দিতা রানী পাশের বাড়ির মুসলিম ছেলে দ্বারা অপহরন হলে এ সংক্রান্তে অনলাইন নিউজ প্রোটাল সনাতন টিভিতে নিউজটি প্রচারিত হয় ৷

Post a comment

0 Comments